ঢাকা, ২৯ জুলাই, ২০২১ || ১৪ শ্রাবণ ১৪২৮
Biz Barta :: বিজ বার্তা
Place your advertisement here

সমবায়ে দুর্দিন

বিজবার্তা রিপোর্ট :

প্রকাশিত: ২৪ এপ্রিল ২০২০  


লাখ লাখ সমবায় সমিতিরই এখন নাকাল অবস্থা। বন্ধ হয়েগেছে ঋণ কার্যক্রম। করোনার অজুহাতে সক্ষম ব্যক্তিরাও পরিশোধ করছে না কিস্তি। সঞ্চয়ও জমা দেয়া হচ্ছে না, ফলে আর্থিক ভঙ্গুরতা তৈরী হচ্ছে। এমন সংকটের মধ্যেও কোন ভূমিকাই গ্রহণ করেনি নিয়ন্ত্রক সংস্থা, সমবায় অফিদপ্তর। অন্যান্য আর্থিক প্রতিষ্ঠান এরই মধ্যে সুরক্ষা পদক্ষেপ গ্রহণ করলেও সমবায় সমিতিগুলো পরিচালনার ক্ষেত্রে কোন নির্দেশনা এবং প্রণোদনা উদ্যোগ হাতে নেয়নি অধিদপ্তর।

 

সংকট থেকে উত্তরণে নিয়ন্ত্রক সংস্থা সমবায় অধিদপ্তরের কাছে সহায়তা চেয়ে সম্প্রতি চিঠি দিয়েছে সম্প্রীতির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা এমদাদ হোসেন মালেক। চিঠিতে বলা হয়, প্রণোদনা প্যাকেজ না দেয়া হলে, এই প্রতিষ্ঠানের টিকিয়ে রাখা কঠিন হবে। প্রতিষ্ঠানের ১৫৩ জনের জনবল কাঠামো ধরে রাখা সম্ভব হবে না। চিঠিতে সমবায় সমিতিগুলোর কার্যক্রম চলমান রাখতে ঋণ আদায় প্রদান বিষয়ে একটি সার্কুলার জারী করার তাগিদ দেয়া হয়। এছাড়া ক্রেডিট ইউনিয়নসহ সকল সমবায় সমিতির অর্জিত নিট মুনাফার ওপর ২০১৫ অর্থবছর থেকে আরোপিত ১৫ শতাংশ কর গ্রহণ স্থগিত করার দাবী তোলা হয়।       

 

একাধিক সমবায় সমিতির শীর্ষ কর্তাদের সঙ্গে কথা বলে জানাগেছে, ঋণ এবং কিস্তি উত্তোলন বিষয়ে সমবায় অধিদপ্তরের কোন দিকনির্দেশনা না থাকায় সমবায় খাতে চরম স্থবিরতা তৈরী হয়েছে। বলা হয়, বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা, এনজিও পরিচালনার ক্ষেত্রে মাইক্রোক্রেডিট রেগুলেটর অথরিটি, এমআরএ থেকে নির্দেশনা জারি করা হলেও এক্ষেত্রে চুপ সমবায় অধিদপ্তর।

 

সমবায় অধিদপ্তরের অতিরিক্ত নিবন্ধক আহসান হাবীব জানান, করোনার কারণে পুরো দেশই এখন লকডাউন অবস্থা। এমন অবস্থায় সমবায় প্রতিষ্ঠানের কর্মকান্ড পরিচালনার ক্ষেত্রে তেমন কোন নির্দেশনা নেই। প্রাদুর্ভাব কেটে গেলে ক্ষতি নিরুপণ করে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। তিনি বলেন, আর্থিক প্রণোদনা বা এ সংক্রান্ত অন্য কোন সহায়তার বিষয়ে এখনও পরিকল্পনা নেয়নি সমবায় অধিদপ্তর। বলেন, রাষ্ট্রায়ত্ব সমবায় প্রতিষ্ঠান মিল্ক ভিটায় চরম সংকট তৈরী হয়েছে। দুধ বিক্রি করতে না পায় বাড়ছে লোকসান।   

 

বর্তমানে সারা দেশে নিবন্ধিত সমবায় সমিতির সংখ্যা রয়েছে এক লাখ ৭৪ হাজার ৫৩৫টি। এসব সমিতির মাধ্যমে ছয় লাখ ৮৪ হাজার ৭০ জন লোকের বা পরিবারের আত্মকর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি হয়েছে। প্রায় দুই লাখ সমিতির মাধ্যমে সুবিধাভোগী পরিবারের পাশাপাশি ২৩ হাজার ১১৮টি সমবায় সমিতি ঋণদান কর্মসূচির সঙ্গে সংযুক্ত রয়েছে।


Place your advertisement here
Place your advertisement here
Place your advertisement here
Place your advertisement here